Translate

SEO কি?

Search Engine Optimization যাকে সংক্ষিপ্ত ভাবে SEO বলে। আপনি যদি একজন ইউটিউবার, অথবা ব্লগার হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই SEO সম্পর্কে জানতে হবে। চলুন SEO সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।


SEO এর কাজ কি?

SEO এর কাজ হলো আপনার ইউটিউব চ্যানেলকে, অথবা আপনার ব্লগকে আপনার বানানো আপলোডকৃত ভিডিও বা কন্টেন্ট গুলোকে Search Engine Ranking করে দেওয়া । যেমন মনে করুন আপনি একটি ভিডিও বানিয়ে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড দিলেন এবং আপনার আপলোডকৃত ভিডিওর টাইটেল দিলেন ”বাংলা ফানি ভিডিও” এখন আপনার ভিডিও টাইটেল দিয়ে যদি কেউ ইউটিউবে সার্চ করে তখন আপনার ভিডিওটি ভিউয়ার দেখতে পারবে। এখন প্রশ্ন হলো ”বাংলা ফানি ভিডিও” নামে যদি আপনার এই টাইটেলটি শুধু যে আপনি একা ব্যাবহার করেছেন তা নয়। ইউটিউবে এমন হাজারো ইউটিউবার আছে যারা একই নামে হাজারো টাইটেল ব্যাবহার করে থাকে। এর জন্য আপনাকে ইউটিউব ট্যাগ জেনারেট করে আপনার ভিডিওর ট্যাগ অপশনে দিতে হবে। উদাহরন হিসেবে আপনি যদি “বাংলা ফানি ভিডিও” লিখেে এন্টার করেন এই নামে যতগুলো ট্যাগ ব্যাবহার করা হয়েছে গুগলে সব গুলো আপনাকে জেনারেট করে দেখাবে। সেখান থেকে আপনার ভিডিও রিলেটেড আপনার পছন্দ অনুযায়ী ট্যাগগুলো কপি করে আপনার ভিডিওর ট্যাগ অপশনে যোগ করে দিতে হবে। ট্যাগ বসানোর পর দেখবেন ধীরে ধীরে আপনার ভিডিও এবং ব্লগের ভিউয়ার বেড়ে যাবে।

কিভাবে এসইও করবেন?

আপনার চ্যানেলটিকে এসইও করতে প্রথমে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নামটি অন্য কোনো চ্যানেলের নামের সাথে মিল আছে কিনা দেখতে হবে। অথবা ইউটিউবে সার্চ করে দেখতে পারেন এই নামে আর কোনো চ্যানেল আছে কিনা। যদি না থাকে তাহলে আপনার বর্তমান চ্যানেলের নামে কোনো প্রকার পরিবর্তন করার প্রয়োজন নেই। আর যদি একই নাম আরো থাকে তাহলে আপনার চ্যানেলের নামে কিছুটা পরিবর্তন করে সবার চেয়ে আলাদা একটি নাম চয়েজ করুন।



তারপর আপনার চ্যানেলে সেটিংসে গিয়ে চ্যানেল কিওয়ার্ড যোগ করুন।



আপনার চ্যানেলে ব্যানার এড করে সেখানে আপনার সোস্যাল মিডিয়ার লিঙ্ক এড করে দিন। এবং ব্যানারে ছবির ডেসক্রিপশনে আপনার চ্যানেলের ট্যাগগুলো এড করে দিন।






ট্যাগ জেনারেট করার জন্য বেস্ট দুইটি এক্সটেনশন ব্যবহার করতে পারেন। দুইটির যেকোনো একটি আপনার ব্রাউজারের এক্সটেনশনে এড করতে পারেন। এগুলো ফ্রি এবং পেইড দুইভাবে ব্যবহার করা যায়। ফ্রিতে সার্ভিস একটু কম পাওয়া যায়। পেইডে আপনার কাঙ্খিত সব কিছুই আপনি ব্যবহার করে আপনার ভিডিওটিকে আপনি সার্চে র‌্যাঙ্কিং করাতে পারবেন।



ইউটিউব ভিডিও কিভাবে এসইও করবেন?


ইউটিউব ভিডিও এসইও করার জন্য প্রথমে আপনাকে আপনার ভিডিওর কনটেন্ট অনুযায়ী একটি টাইটেল ঠিক করতে হবে। টাইটেলটি যেন আকর্ষনীয় হয়। তার জন্য কিওয়ার্ড প্ল্যানার ব্যাবহার করে টাইটেল বাছাই করতে পারেন। টাইটেল বাছাইয়ের পর ভিডিও ডেসক্রিপশনে ভিডিওর বিস্তারিত লিখতে হবে।






তারপর আপনার ভিডিওর টাইটেল অনুযায়ী ট্যাগ জেনারেট করে ট্যাগের ঘরে বসিয়ে দিন।






ইউটিউব চ্যানেল এসইও করার আরো এডভান্স পদ্ধতি আছে পরবর্তী আর্টিকেলে লেখার চেস্টা করবো। পুরো আর্টিকেলটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।







লেখক : মামুন সরকার

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন