ব্লগে ভিজিটর বাড়ানোর কৌশল।


যারা নতুন ব্লগিং শুরু করে তাদের ক্ষেত্রে ব্লগে ভিজিটর না আসার এই সমস্যা হওয়াটা সাধারণ ঘটনা। তারা জানেই না কী করলে অর্গানিক ট্রাফিক আসবে। ব্লগ তো ফেসবুক নয় যে লিখলেই ট্রাফিক আসবে।

এখন প্রশ্ন হল কীভাবে অর্গানিক ট্রাফিক আসবে?

আমার সব ব্লগ সাইট মিলিয়ে দেড় থেকে দুই লাখ ভিজিটর প্রতিমাসে আসে। ৯৮% আসে গুগল সার্চের মাধ্যমে। আর গুগল এডের থেকে দৈনিক আয় গড়ে ১৩ ডলারের মতো। আমার ব্লগ ইংরেজিতে হলে আয় কয়েকগুন বেশি হত।

আরো পড়ুন> ব্লগ সাইট এসইও করার নিয়ম


জানুন কীভাবে ব্লগে অর্গানিক  ট্রাফিক আসবে

  • আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটকে অবশ্যই Google search console এবং Bing webmaster tool এ এড করতে হবে।
  • প্রতিটি ব্লগ আর্টিকেলকে SEO Friendly হতে হবে।
  • Keyword research করতে শিখতে হবে। সেই কিওয়ার্ড খুঁজে বের করতে হবে যার সার্চ ভলিউম ভাল কিন্তু কম্পিটিশন কম। এখানে আপনি ফ্রি তে Google keyword planner or ubersuggest ব্যবহার করতে পারেন।
  • প্রতিটি রিলেটেড আর্টিকেলকে ইন্টারনাল লিঙ্কিং করতে হবে।
  • ব্লগপোস্ট প্রকাশ করার পর সেই ব্লগপোস্টের লিংক বিভিন্ন সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করতে হবে। যেমন ফেসবুক, টুইটার, লিংডিন, ইন্সট্রাগ্রাম, টাম্বলার ইত্যাদি।

আরও জানুনঃ-

অর্গানিক ভিজিটর না আসার আরেক প্রধান কারণ হল ব্লগ সাইটে নিয়মিত আর্টিকেল প্রকাশ না করা।

আপনি যদি আপনার ব্লগ সাইটে নিয়মিত লেখালেখি বা এডিটিং না করেন তাহলে আপনার ব্লগপোস্ট রেঙ্ক করাবে না গুগল।

সবসময় মনে রাখবেন গুগল প্রতিটি ব্লগারের প্রতিটি খুঁটিনাটি কার্যকলাপের উপর নজর রাখে।

উপরের নিয়মগুলি মেনে আপনি যদি ক্রমাগত আর্টিকেল লিখতে থাকেন তাহলে দু মাসের ভেতর আপনার ব্লগ গুগল সার্চে রেঙ্ক করতে শুরু করবে।

এর পরের স্টেপ হল - অনেকেই ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারেন না। অনেকেই আবার ভুল লিংক তৈরি করেন। যদি আপনার ব্লগ রান্নার উপর হয় তাহলে আপনাকে লিংক রান্নার ওয়েবসাইট থেকেই নিতে হবে। আপনি যদি খেলার সাইট থেকে লিংক নেন সেটা আপনার সাইটের জন্য ক্ষতিকারক।

আপনি যদি ওয়েবসাইট বা ব্লগ থেকে আয় করতে চান তাহলে আপনার সাইটে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর থাকতে হবে। ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য ভিজিটর অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। ভিজিটর ছাড়া ব্লগ বা ওয়েবসাইটের কোন মূল্য থাকে না একেবারেই অর্থহীন হয়ে পড়ে। এই কারণেই আমরা বলে থাকি ভিজিটর হল ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য প্রাণ। তাই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে টাকা উপার্জন করার জন্য হউক বা আপনার লেখার সঠিক মূল্য পাওয়ার জন্য অথবা আপনার পরিচিতি পাওয়ার জন্য যেটাই হোক না কেন আপনার প্রথম শর্ত হল আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনা।

আমি ধরেই নিলাম আপনার একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগ আছে এবং আপনি সেখানে নিয়মিত অনেক কষ্ট করে আর্টিকেল পাবলিশ করেন, কিন্তু আপনার সেই কষ্ট কখনোই স্বার্থক হবে না যতক্ষন না পর্যন্ত আপনার ওয়েবসাইটে কোন ভিজিটর প্রবেশ করে। যদিও ভিজিটর আনা খুব একটা সহজ কাজ না সকলের পক্ষে এটা সম্ভব পর হয়ও না কিন্তু তারপর ও আপনি যদি সঠিক উপায়ে নিয়মকানুন মেনে চেষ্টা করেন তাহলে আপনার সাইটেও নিয়ে আসতে পারবেন আশানুরুপ ভিজিটর ।


আজ আমি আপনাদেরকে এই বিষয় নিয়েই আলোচনা করবো যে, কিভাবে আপনার সাইটে বা ব্লগে আশানুরুপ ভিজিটরে নিয়ে আসতে পারবেন খুব কম পরিশ্রমে এবং কম সময়ের মধ্যে। তাই আমি আশা করি সবাই পুরো আর্টিকেলটিকে মনোযোগ দিয়ে শেষ পর্যন্ত পড়বেন। যদি সত্যিই আপনাদের ওয়েবসাইটে বা ব্লগে ভিজিটর বাড়াতে চান তাহলে একটু ধৈর্য ধরে আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়তে হবে।

একটি ওয়েবসাইটে ভিজিটর এর সোর্স এর ওপর ভিত্তি করে তাদের কে মোট ৪ ভাগে ভাগ করা যায় আর তা হলো:

ডিরেক্ট ট্রাফিক

যেসমস্ত ভিজিটর আপনার সাইটের ওয়েব এড্রেস কোনো ব্রাউসারে বসিয়ে সার্চ করার মাদ্ধমে আপনার সাইটে প্রবেশ করে তাদেরকে ডিরেক্ট ট্রাফিক বলা হয়।

এই যেমন কেউ যদি আমার সাইট www.infoplusbd.com তার ওয়েব ব্রাউসারে সার্চ করে সরাসরি আমার সাইটে প্রবেশ করে তবে সে আমার সাইটের জন্য ডিরেক্ট ট্রাফিক হিসেবে গণ্য হবে।

সোশ্যাল ট্রাফিক।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আসা ভিজিটরগণ হলো সোশ্যাল ট্রাফিক।

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন Facebook, Google+, Twitter, LinkedIn ইত্যাদি থেকে যারা আপনার ওয়েবসাইটের লিংকে ক্লিক করে আপনার সাইটে প্রবেশ করে তারা আপনার সাইটের সোশ্যাল ট্রাফিক।

রেফারেল ট্রাফিক

অন্য কোনো সাইটে আপনার সাইটের লিংক দেয়া থাকলে সেই লিংক ধরে যেসমস্ত ভিজিটর আপনার সাইটে আসে তারা হলো আপনার সাইটের রেফারাল ট্রাফিক।

অর্গানিক ট্রাফিক

আর সার্চ ইঞ্জিন থেকে যেসব ট্রাফিক আসে তা হলো অর্গানিক ট্রাফিক।

ধরেন কেউ কোনো কীওয়ার্ড লিখে গুগল এ সার্চ দিলো ও আপনার একটি আর্টিকেল গুগল এর সার্চ রেজাল্ট এর প্রথম পেইজে পেলো।

এখন সে যদি আপনার সাইটের লিংকে ক্লিক করে প্রবেশ করে তবে সে আপনার সাইটের একজন অর্গানিক ট্রাফিক হিসেবে বিবেচিত হবে।

যেমন আপনি যদি গুগলে (Google) গিয়ে "ফ্রি ওয়েেবসাইট তৈরি করুন" লিখে সার্চ দেন তবে আপনি আমার বাংলা সাইট Info plus bd এর একটি আর্টিকেল গুগল সার্চ রেজাল্টের দশ নাম্বার পেজে পেয়ে যাবেন।

এখন আপনি ওই আর্টিকেলে ক্লিক করে আমার সাইটে আসলে আপনি আমার সাইটের একজন অর্গানিক ট্রাফিক হিসেবে বিবেচিত হবেন।


এই সকল ট্রাফিক কে আবার দুই ভাগে ভাগ করা যায়: ফ্রি ও পেইড।

যে ট্রাফিক আপনি কোনো খরচ ছাড়াই আপনার সাইটে নিয়ে আসতে পারেন তা হলো ফ্রি ট্রাফিক ও খরচ করে ট্রাফিক আনার পদ্ধতিটি হলো পেইড ট্রাফিক।

আমি এই গাইডে ফ্রি ও পেইড উভয় প্রকার ট্রাফিক জেনারেশন পদ্ধতিই দেখাবো।

তো প্রথমেই আমি ট্রাফিক আনার ফ্রি পদ্ধতিগুলো দেখাচ্ছি।

ফ্রি ডিরেক্ট ট্রাফিক পাবার উপায়

 ➡️ মুখে মুখে আপনার ওয়েবসাইটের প্রচার করুন

সব থেকে প্রথমে আপনার সাইটে কোনো ট্রাফিকই আসবে না একমাত্র আপনার পরিচিত লোকজন ব্যতীত। তাই আপনার ওয়েবসাইট খোলার পর পরই এর প্রচারে নেমে পড়ুন। আত্মীয়-স্বজন থেকে শুরু করে বন্ধু-বান্ধব, পাড়া-প্রতিবেশী কাউকেই আপনার সাইট সম্পর্কে বলা বাদ দেবেন না। দেখবেন এভাবে আপনার সাইটে এমনিতেই অনেক লোক ভিজিট করছে।

➡️ আপনার ওয়েবসাইটের নাম আপনার ইমেইল ও স্কাইপের স্বাক্ষর হিসেবে ব্যবহার করুন। আপনার সাইটের নাম যদি আপনার ইমেইলের স্বাক্ষরের নিচে দেন তবে যাকেই আপনি কোনো ইমেইল পাঠাবেন, সে তৎক্ষণাৎ আপনার সাইট সম্পর্কে জানতে পারবে।একইভাবে আপনার স্কাইপে প্রোফাইলের নিচে আপনার সাইটের নাম যুক্ত করুন।

➡️ লোকাল, ন্যাশনাল ও ইন্টারন্যাশনাল বিভিন্ন কনফারেন্স এ অংশগ্রহণ করুন বিভিন্ন কনফারেন্স এ যোগদান করলে আপনি অনেক মানুষের সাথে পরিচিত হতে পারবেন। আপনার সাইট সম্পর্কে তাদেরকে বলুন আর কোনো কনফারেন্স বা সেমিনারে যদি কিছু বলার সুযোগ পেয়ে যান তবে আপনাকে আর পায় কে।


ফ্রি সোশ্যাল ট্রাফিক পাবার উপায়

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে আপনার আর্টিকেল শেয়ার করতে থাকুন

➡️ আপনার আর্টিকেল পাবলিশ করার পর তা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেলে শেয়ার করুন। এভাবে যাই পাবলিশ করুন না কেন তা আপনার সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ও পেইজে শেয়ার করতে থাকুন।

একই সাথে আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার কানেকশনস বাড়াতে থাকুন। এভাবে আপনি অনেককেই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আপনার সাইটের দিকে নিয়ে আসতে পারবেন।

➡️ পূর্বে শেয়ার করা আর্টিকেলগুলো মাঝে মাঝে পুনরায় শেয়ার করুন

আপনার কনটেন্ট একবার শেয়ার করলেই আপনার কাজ শেষ তা ভাববেন না। বারে বারে তা শেয়ার করার মাদ্ধমে আপনি নতুন নতুন অনেক মানুষকে আপনার সাইটের ট্রাফিক হিসেবে পেতে পারেন।

➡️ আপনার পরিচিতদেরকে আপনার আর্টিকেল শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করুন

লাইফে উন্নতি করতে হলে EGO থেকে দশ হাত দূরে থাকতে হবে। আপনাদের অনেকেই আছেন যে কাউকে একটু রিকোয়েস্ট করে আপনার কনটেন্ট শেয়ার করাকে অপমানজনক মনে করবেন, কিন্তু ভুলেও এসব ভাববেন না।

➡️ আপনার পরিচিতজনদের বলতে থাকুন যেন তারা আপনার কনটেন্ট নিয়মিত শেয়ার করে।

বিভিন্ন রিলেভেন্ট গরূপে যেয়ে গ্রূপের মেম্বারদের প্রব্লেম সল্ভ করার চেষ্টা করুন

➡️ ফেইসবুক সহ সকল সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মেই নানা গ্রূপ আছে তাদের মেম্বারদের সমস্যা সমাধানের জন্য। আপনার নিশ রিলেভেন্ট গরূপে জয়েন করে আপনার পরামর্শ দিয়ে তাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করুন। 

➡️ Quora ও Yahoo Answers এ মানসম্মত উত্তর দিন

➡️ বেশি বেশি টার্গেটেড সোশ্যাল ট্রাফিক পেতে আপনি Quora ও Yahoo Answers এ নিয়মিত উত্তর লিখতে পারেন। এসব প্লাটফর্মে প্রতিনিয়ত মানুষজন বিভিন্ন প্রশ্ন করছে।

আপনার এসব প্রশ্নের উত্তর জানা থাকলে তা তাদেরকে জানিয়ে দিন।

➡️LinkedIn ও Medium এ ব্লগ পোস্ট পাবলিশ করতে থাকুন

এ দুটি প্লাটফর্মে অনেকে ভিজিট করে, তাই আপনি আপনার ব্লগ পোস্ট সেখানে পাব্লিশের মাদ্ধমে তাদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারেন।

ফ্রি রেফারেল ট্রাফিক পাবার উপায়

 ➡️ অন্য সাইটে ভালো কমেন্ট করুন

সহজে রেফারেল ট্রাফিক পাবার সব থেকে সহজ উপায় হলো অন্য সাইটে বেশি বেশি কমেন্ট করা।

আপনি নিয়মিত অন্য সাইটসমূহে কমেন্ট করতে থাকলে দেখবেন যে অনেকেই ঐসব সাইট থেকে আপনার সাইটে ভিজিট করছে।

➡️ গেস্ট পোস্ট সাবমিট করুন

গেস্ট পোস্ট হলো অন্য কোনো সাইটে আপনার লেখা কনটেন্ট পাবলিশ করা। এ উপায়ে অনেকেই হাজার হাজার ট্রাফিক তাদের নিজেদের সাইটে নিয়ে আসে।

আপনিও গেস্ট পোস্টিং ট্রাই করে দেখুন।

➡️ আপনার সাইটে অন্যদের গেস্ট পোস্ট পাবলিশ করুন

একইভাবে অন্যদেরকেও আপনার সাইটে গেস্ট পোস্ট করতে দিন। দিলে দেখবেন যে তারাও আপনার সাইটের লিংক তাদের সাইটে যুক্ত করছে ফলে আপনি ওই লিংকের মাদ্ধমে আপনার সাইটে রেফারেল ট্রাফিক নিয়ে আসতে পারবেন।

➡️ অন্য ওয়েবসাইটের স্বত্বাধিকারীদের ইন্টার্নভিউ নিয়ে তা আপনার সাইটে পাবলিশ করুন

অন্যদের ইন্টারভিউ আপনার সাইটে পাবলিশ করা খুবই কাজের কারণ যার ইন্টারভিউ আপনি পাবলিশ করছেন সে কিন্তু তার As Seen On পেইজে আপনার সাইটের লিংক দেবে।

অন্য সাইটে আপনার ইন্টারভিউ নেওয়ার জন্য পিচ করুন

একইভাবে আপনিও অন্য সাইটে আপনার ইন্টারভিউ পাব্লিশের জন্য চেষ্টা করতে থাকুন।

➡️ রাউন্ড আপ পোস্ট পাবলিশ করুন

রাউন্ড আপ পোস্ট হলো কোনো বিষয়ের ওপর বিভিন্ন এক্সপার্টদের মতামত বা পরামর্শ শেয়ার করা।

এধরণের পোস্টের মাদ্ধমে অনেকেই আপনার সাইটের লিংক তাদের সাইটে উল্লেখ করবেন যা রেফারেল ট্রাফিক পাবার একটি ভালো সোর্স হিসেবে কাজে দিতে পারে।

➡️ ইমেইল মার্কেটিং করুন

ইমেইল মার্কেটিং আপনাকে অনেক রেফারেল ট্রাফিক এনে দিতে পারে। তাই বেশি বেশি ইমেইল কালেক্ট করে তাতে আপনার সাইটের লিংক সহ বিভিন্ন হেল্পফুল কনটেন্ট পাঠান।

তবে কখনোই স্প্যাম করবেন না।

ফ্রি অর্গানিক ট্রাফিক পাবার উপায়

অর্গানিক ট্রাফিক পেতে হলে আপনাকে কয়েকমাস অপেক্ষা করতে হতে পারে, তবে একবার অর্গানিক ট্রাফিক আসা শুরু হলে তা আপনার সাইটের জন্য খুবই সুসংবাদ এর কথা।

➡️ একটা লো কম্পিটিটিভ নিশ এর ওপর আপনার আর্টিকেল লিখতে থাকুন

অর্গানিক ট্রাফিক পেতে হলে আপনার কনটেন্ট সার্চ এঞ্জিনে রাঙ্ক করতে হবে আর এর জন্য আপনাকে লো কম্পিটিটিভ কীওয়ার্ড এর ওপর আপনার নিশ সিলেক্ট করা উচিত।

তবে খেয়াল রাখবেন যেন আপনার নিশের মেইন কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিউম যেন যথেষ্ট হয়। কোনো কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিউম মানে হলো ওই কীওয়ার্ডটি মাসে কতবার সার্চ করা হয় তার সংখ্যা।

➡️ আর্টিকেলগুলোর কীওয়ার্ড ও যেন লো কম্পিটিটিভ হয়

আপনি যে আর্টিকেলই লেখেন না কেন তা যদি লো কম্পিটিটিভ কীওয়ার্ড এর ওপর হয় তবে আপনি খুব দ্রুত তা রাঙ্ক করতে পারবেন।

তাই আপনার কীওয়ার্ড গুলো লো কম্পিটিটিভ হলে ভালো হয়।

➡️ কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিউম যেন অনেক হয়

আপনার আর্টিকেলের কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিউম টা একটু দেখে নেয়া উচিত। এর কারণ হলো আপনার কীওয়ার্ডগুলোর সার্চ ভলিউম যথেষ্ট না হলে তাতে রাঙ্ক করলেও তেমন অর্গানিক ট্রাফিক পাওয়া যাবে না।

➡️ লং-টেইল কীওয়ার্ডস এর ওপর লিখুন

লং-টেইল কীওয়ার্ড টার্গেট করা ভালো কারণ এতে করে রাঙ্ক করা সহজ হয় ও একই সাথে একাধিক কীওয়ার্ড এর ওপর ও রাঙ্ক করা যায়।

➡️ কিছুটা কীওয়ার্ড প্রমিনেন্স মেনে চলুন

আপনার আর্টিকেল রাঙ্ক করে বেশি বেশি অর্গানিক ট্রাফিক পেতে কিছুটা কীওয়ার্ড প্রমিনেন্স মেনে চলা বাঞ্চনীয়।

এই যেমন আপনার আর্টিকেলের টাইটেলে ও আরো কিছু অংশে আপনার টার্গেট করা কীওয়ার্ড টা বসানো উচিত তাতে করে রাঙ্ক করা সহজ হবে।

➡️ ডিটেইলড ব্লগ পোস্ট লিখুন (১৫০০ থেকে ২০০০ ওয়ার্ডস বা তারও বেশি বড় গাইড পাবলিশ করুন

এখন আর আগের দিন নেই যে ছোট ছোট পোস্ট লিখলেই রাঙ্ক করা যাবে। তাই একটু ডিটেইলড পোস্ট পাবলিশ করার চেষ্টা করুন।

তবে বাংলায় কনটেন্ট তৈরী করার ক্ষেত্রে এখনো অনেক ছোট কন্টেন্ট রাঙ্ক করবে কারণ তাতে কম্পেটিশন খুব একটা বেশি না।

➡️ রেস্পন্সিভ ডিজাইন মেইনটেইন করুন

রেস্পন্সিভ ওয়েবপেইজ ব্যবহার করলে আপনার সাইটটি যেকোনো ডিজিটাল ডিভাইস এ সুন্দর করে দেখা যাবে। একটি ভালো মানের রেস্পন্সিভ থিমই আপনার সাইটটিকে রেস্পন্সিভ করার জন্য যথেষ্ট।

তাই যে থিমই ব্যবহার করেন না কেন দেখবেন যেন সেটি রেস্পন্সিভ হয়।

➡️ আপনার আর্টিকেলগুলোর ওয়েবপেইজের স্পিড যেন দ্রুত হয়

আপনার ওয়েবপেইজের স্পিড খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার, তাই আপনার সাইটের স্পীডের দিকে খেয়াল দিন ও তা অপ্টিমাইজ করে বাড়ানোর চেষ্টা করুন।

এবার পেইড ট্রাফিক পাবার উপায়সমূহ একে একে দেখাবো।

পেইড ডিরেক্ট ট্রাফিক পাবার উপায়

➡️ নিউসপেপার, টেলিভশন, ও রেডিওতে এড দিতে পারেন

এসব চ্যানেলে এড দিলে অনেকেই অফলাইন থেকে আপনার সাইটের খবর পাবে ও আপনার সাইটে প্রবেশের জন্য আগ্রহ দেখাবে।

➡️ আপনার বিসনেস কার্ডে আপনার সাইটের নাম স্পষ্টভাবে উল্লেখ করুন ও তা বিতরণ করুন

আপনার বিজনেস কার্ডটি আপনার সাইট প্রমোট এর ক্ষেত্রে খুব বড় ভূমিকা রাখতে পারে তাই আপনার সাইটের ওয়েব এড্রেস অবশ্যই আপনার কার্ডে উল্লেখ করুন।

➡️ হ্যান্ডবিল বানিয়ে তা বিতরণ করতে পারেন

আপনার ওয়েসাইটের ডিরেক্ট ট্রাফিক বাড়াতে হলে আপনি আপনার সাইট সম্পর্কে হ্যান্ডবিল এ ছাপিয়ে তা বিলি করতে পারেন।

➡️ পোস্টারিং করতে পারেন

একইভাবে পোস্টারিং হতে পারে আপনার সাইটের ডিরেক্ট ট্রাফিক বৃদ্ধির আরেকটি ভালো মাধ্যম।

➡️ বিলবোর্ডে আপনার সাইটের এড দিতে পারেন

এটি অনেক ব্যয় বহুল হতে পারে যদিও আপনি যদি আপনার সাইট থেকে ভালো আয় করতে পারেন তবে এভাবে আপনার সাইটটিকে প্রমোট করা যেতেই পারে।

পেইড সোশ্যাল ট্রাফিক পাবার উপায়

✅ ফেসবুক বুস্টিং

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আপনার টার্গেটেড ট্রাফিক পাবার একটি ভালো উপায় হতে পারে ফেইসবুক বুস্টিং।

এটি আমার সাইটের জন্য ব্যাপক কাজে দেয় ও আপনিও তা কাজে লাগিয়ে বেশি বেশি সোশ্যাল ট্রাফিক আপনার সাইটে আনতে পারেন।

 ✅ LinkedIn প্রিমিয়াম

এই প্লাটফর্ম এর প্রিমিয়াম প্লানের মাদ্ধমে আপনি বেশ কিছু ট্রাফিক আপনার সাইটে আনতে পারেন।

 ✅ Twitter এড

Twitter ও তাদের প্লাটফর্মে এড দেবার ব্যবস্থা রেখেছে যা আপনিও ট্রাই করে দেখতে পারেন।

StumbleUpon (Rediscover the Internet এড

এই প্লাটফর্মেও এড দিয়ে বেশি বেশি ট্রাফিক আনা যায়।

পেইড রেফারেল ট্রাফিক পাবার উপায়

স্পন্সরড পোস্ট

পেইড রেফারেল ট্রাফিক আনতে আপনি স্পন্সরড পোস্ট করতে পারেন। বিভিন্ন সাইটে আপনি নির্দিষ্ট একটি টাকার বিনিময়ে আপনার পোস্ট পাবলিশ করুন যার ভিতরে আপনার সাইটের লিংক থাকবে।

পেইড সার্চ ট্রাফিক পাবার উপায়

 ➡️ Google Ads

গুগল এর এডওয়ার্ড (Google AdWords) এখন গুগল এড্স নাম পরিচিত এবং এর মাদ্ধমে আপনি আপনার সাইটে সার্চ ট্রাফিক নিয়ে আসতে পারেন।

 ➡️ Bing Ads

একইভাবে বিং এড্স এর মাদ্ধমে আপনি বিং সার্চ ইঞ্জিন থেকে আপনার সাইটে ভিজিটর আনতে পারেন।

ট্রাফিক জেনারেশনের যত আইডিয়া

SMS, Viber, Imo,SMM, Facebook boosting, Google Ads etc

অন্যদের গেস্ট পোস্ট আপনার সাইটে দিন

আপনি যেমন অন্যদের সাইটে পোস্ট দিবেন, ঠিক তেমনি অন্যদের ও আপনার সাইটে পোস্ট করার সুযোগ করে দিন এতে করে আপনি অন্যদের ও পাচ্ছেন যারা আপনার সাইটে ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্য উদ্বুদ্ধ হবে এর কারণ হলো যারা আপনার সাইটে পোস্ট দেবে, তারা কিন্তু চাইবে যে তাদের কন্টেন্টগুলি অন্যরা দেখুক এজন্য তারাও বিভিন্নভাবে কন্টেন্টগুলি প্রমোট করতে থাকবে

আর প্রমোট করা মানে হলো আপনার সাইটের লিংক প্রমোট হওয়া

অন্য সাইটের স্বত্বাধিকারীদের ইন্টারভিউ নিয়ে তা আপনার সাইটে পাবলিশ করুন

অন্যকোনো সফল কারো ইন্টারভিউ নিয়ে আপনি তা আপনার সাইটে পাবলিশ করতে পারেন

এতে করে অনেকেই ওই ইন্টারভিউ পড়ার জন্য আপনার সাইটে আসবে কারণ ওই সফল ব্যক্তি কিন্তু অনেকের কাছেই পরিচিত

অন্যদের সাইটে আপনার ইন্টারভিউ দিন

আপনি ও অন্যদের সাইটে ইন্টারভিউ দিন কারণ একটি সাইটে যত বেশি ভালো ভালো কনটেন্ট পাবলিশ করা হবে, ততই ওই সাইটের ভালো করার সম্ভাবনা থাকে

আর ইন্টারভিউ তৈরী করতে কষ্ট অনেক কম হয় কারণ যে ইন্টারভিউ নেবে তার সে কিন্তু আপনার কাছ থেকে ইন্টাভিউ এর একটা বরো অংশ পেয়ে যাচ্ছে

পেইড রেফারাল ট্রাফিক

ফ্রিতে যেভাবে আপনি রেফারেল ট্রাফিক পেতে পারেন, পেইড উপায়েও কিন্তু তা পাওয়া সম্ভবঅ নেক সাইট ই প্রিমিয়াম গেস্ট পোস্টিং এর সুবিধা দেয় যেখানে আপনি একটি নির্দিষ্ট পরিমান অৰ্থ ব্যয় করে আপনার পোস্ট সেখানে পাবলিশ করতে পারেন।

ডিরেক্ট ট্রাফিক পাবেন যেভাবে!

ডিরেক্ট ট্রাফিক হলো আপনার সাইটের ওই সমস্ত ভিজিটর যারা আপনার সাইটে সরাসরি প্রবেশ করে, তার মানে হলো তারা তাদের ওয়েব ব্রাউজারে আপনার সাইটের দিয়ে প্রবেশ করে,

🌐 মানুষ যত বেশি আপনার সাইটের সম্পর্কে জানবে তত বেশি মানুষ আপনার সাইটে ডিরেক্ট ট্রাফিক হিসেবে প্রবেশ করবে

তাই আপনাকে আপনার সাইট সম্পর্কে বেশি বেশি জানাতে হবে

🌐 আপনার পরিচিতজনদের আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে বলুন দেখবেন অনেকেই আপনার সাইটে প্রবেশ করছে

🌐 একইভাবে আপনি টি-শার্ট, মগ, কলম ইত্যাদি বানিয়ে তার ওপর আপনার সাইটের নাম দিতে পারেন,

🌐 আপনার এই পণ্যগুলি আপনার টার্গেট অডিয়েন্স এর মাঝে বিতরণ করুন

যখনই কেও ওই পণ্য দেখবে বা ব্যবহার করবে, তখন অনেকেই আপনার সাইটে প্রবেশ করে তা সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে আগ্রহী হবে।

🌐 এছাড়া আপনি নিউসপেপার ও অন্যান্য অফলাইন মিডিয়াতে বিজ্ঞাপন দিয়ে অনেক ডিরেক্ট ট্রাফিক আপনার সাইটে পেতে পারেন

ওয়েবসাইট এ অর্গানিক ভিজিটর বাড়াতে নিচের পদ্ধতি গুলো সব সময় মনে রেখে কাজ চালিয়ে যান।

১। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করা,

২। রেসপন্সিভ বা ইউজার ফ্রেন্ডলি থিম ব্যবহার করা,

৩। সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন (এসইও) করা,

৪। সম্পূর্ণ ইউনিক এবং তথ্যমূলক কন্টেন্ট পোষ্ট করা,

৫। ওয়েসবাইট দ্রুত লোড নেয়া,

৬। কন্টেন্টের সাথে আকর্ষনীয় ও প্রাসঙ্গিক ছবি যুক্ত করা,

৮। ডাটা এনালাইসিস করা,

৯। হাইপার লিংক বা ইন্টারনাল লিংক ও ক্ষেত্রবিশেষ এক্সটারনাল লিংক সংযোজন করা,

১০। প্রশ্ন-উত্তর পর্ব সাইট ব্যবহার করা,

১১। ভিডিও মার্কেটিং করা,

১২। বিভিন্ন রিলেটিভ  ব্লগ পোস্টে কমেন্ট করা,

১৩। বাউন্স রেট চেক করা,

১৪। নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করা,

১৫। সঠিক কিওয়ার্ড বাছাই করা ইত্যাদি।

আজ এ পর্যন্তই ভালো লাগলে বন্ধু হবেন, এবং আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন> এসইও কেনো প্রয়োজন


লেখক - মামুন সরকার

Post a Comment

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো